পৃষ্ঠাসমূহ

তারিখ

মঙ্গলবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১১

ইরান ড্রোন বানাবে—আশঙ্কা মার্কিনদের


যুক্তরাষ্ট্রের চালকবিহীন একটি বিমান (ড্রোন) ইরানের কবজায় চলে যাওয়ার পর নানামুখী শঙ্কায় আছেন মার্কিন সামরিক বিশেষজ্ঞরা। ইরানও ড্রোন তৈরি করতে পারে—এমন আশঙ্কা করছেন তাঁরা। ইতিমধ্যে ইরান ঘোষণা দিয়েছে, আটক করা ড্রোনটি থেকে সব তথ্য উদ্ধারের চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে তারা। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের এই খবরে চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন ড্রোন দখলে নিতে পারার ঘটনাকে নিজেদের বিজয় হিসেবে দেখছে ইরান। প্রযুক্তি বা গোয়েন্দাগিরির প্রতিযোগিতায় এখন যুক্তরাষ্ট্রকেই পাল্টা টেক্কা দিতে চাইছে তারা। ইরানের পার্লামেন্টের জাতীয় নিরাপত্তা ও বৈদেশিক নীতিবিষয়ক কমিটির আইনপ্রণেতা পারভিজ সরোরি বলেছেন, ড্রোনের সব তথ্য উদ্ধারের পর ইরানের বিরুদ্ধে ‘আক্রমণের’ অভিযোগ এনে তাঁরা আইনি ব্যবস্থা নেবেন। সরোরি ইঙ্গিত দিয়ে বলেছেন, ইরানের এ ধরনের ড্রোন তৈরির ক্ষমতা রয়েছে। তবে তিনি বিস্তারিত কিছু বলতে চাননি।

গত বৃহস্পতিবার ইরানের টিভিতে এক ভিডিওচিত্রে দেখানো হয়, ইরানের সামরিক কর্মকর্তারা যুক্তরাষ্ট্রের আরকিউ-১৭০ ড্রোনটিকে পরীক্ষা করে দেখছেন। ইরানের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানায়, ড্রোনটিকে গুপ্তচরবৃত্তির কাজে ব্যবহার করছিল যুক্তরাষ্ট্র। আফগান সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে ড্রোনটি ইরানের আকাশসীমা লঙ্ঘন করলে সেটিকে আটক করা হয়। মার্কিন কর্মকর্তারাও ড্রোনটি হারানোর কথা স্বীকার করেছেন।

ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের কর্মকর্তারা বলেন, তাঁরা ড্রোনটিকে বৈদ্যুতিক কৌশল প্রয়োগ করে নিজেদের কবজায় নিয়ে আসেন। তাই ড্রোনটির খুব বেশি ক্ষতি হয়নি।
তবে মার্কিন কর্মকর্তাদের দাবি, ইরান ড্রোনটিকে আটক করতে গুলি বা সাইবার প্রযুক্তি ব্যবহার করেনি। ড্রোনটির যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে সেটি ইরানের কবজা চলে গেছে। তাঁদের আশঙ্কা, ড্রোনটির রাসায়নিক কম্পোজিশন, রাডার, উন্নত অপটিক প্রযুক্তি ফাঁস হলে প্রতিপক্ষও ড্রোন তৈরি করতে পারে।
এদিকে আইএসএনএ সংবাদ সংস্থায় দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে সরোরি আরও বলেন, ইরানের নৌবাহিনী শিগগিরই পারস্য উপসাগরের মুখে কৌশলগত হরমুজ প্রণালি যাতে বন্ধ করে দিতে পারে, সে ব্যাপারে মহড়া শুরু করবে। ইরানের পরমাণু কর্মসূচি বন্ধ করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের দেওয়া হুমকির পাল্টা জবাবে সরোরি বলেছিলেন, বিশ্ব যদি ইরানকে আক্রমণ করে, তাহলে ইরান সারা বিশ্বকে বিপদের মুখে ফেলবে।

ইরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে বিতর্ক চলছে অনেক দিন থেকেই। পশ্চিমা বিশ্ব সন্দেহ করছে, ইরান পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি করছে। তবে ইরান বরাবরই এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে। ইরান বলেছে, তাদের পরমাণু কর্মসূচি পুরোপুরি শান্তিপূর্ণ। টাইম অবলম্বনে।

সূত্রঃ প্রথম আলো, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১১

1 টি মন্তব্য:

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করুন